রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০১:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
প্রস্তাবিত বাজেটে জনগণের জীবনযাত্রার উন্নয়নে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে মৌলভীবাজারে বন্যায় ৪৫০টি গ্রাম প্লাবিত: খোলা হয়েছে ৯৮টি আশ্রয় কেন্দ্র সুনামগঞ্জ জেলার বন্যা উপদ্রুত এলাকা পরিদর্শনে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী রংপুরের বাজারে উঠতে শুরু করেছে সুস্বাদু হাঁড়িভাঙা আম মাদারীপুরে ডিবি পুলিশের জালে ৫৫০ পিচ ইয়াবা সহ আটক ৩ জন ফরিদপুরে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেটকে আটক ঈদে ঘরমুখো মানুষের হয়রানী ও টিকেট কালোবাজারী বন্ধে পুলিশ ও র‌্যাবের সাব-কন্ট্রোল রুম চালু চাঁপাইনবাবগঞ্জে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও দোয়া মাহফিল নড়াইলে মোটরসাইকেল-ট্রাক মুখোমুখি সংঘর্ষে স্কুলছাত্র নিহত আরোহী গুরুতর আহত ফরিদপুরে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

আজ খান সাহেব শেখ মোশাররফ হোসেনের ৩১তম মৃত্যুবার্ষিকী

কে এম সাইফুর রহমান, গোপালগঞ্জ
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১২ জুলাই, ২০২২
  • ৫৪৫ Time View

আজ খান সাহেব শেখ মোশাররফ হোসেনের ৩১তম মৃত্যু বার্ষিকী।গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার ঐতিহ্যবাহী শেখ পরিবারের সন্তান শেখ লুৎফর রহমান সাহেবের ভাই,  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চাচা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার দাদা,

শেখ কবির হোসেন, শেখ সাহান, শেখ জাকির, মিল্ক ভিটার চেয়ারম্যান  শেখ নাদির হোসেন লিপু, শেখ আজগর হোসেন দিপু, বাংলাদেশ তাঁতী লীগ একাংশের সভাপতি শেখ কামরুল ইসলাম বিটু ও গোপালগঞ্জ পৌরসভার সদর নির্বাচিত মেয়র শেখ রকিব হোসেনের গর্বিত পিতা খান সাহেব শেখ মোশারফ হোসেন ৩১ বছর আগে এই দিনে তাহার সুযোগ্য উত্তরসূরী রেখে মৃত্যুবরন করেন।

খান সাহেব শেখ মোশারফ হোসেন তাহার কর্মজীবনে এদেশের মানুষের কল্যানে নিয়োজিত ছিলেন। ব্রিটিশ আমলে তিনি গোপালগঞ্জ ইউনিয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান ছিলেন। ব্রিটিশরা তাহার জনসেবামূলক কাজে সন্তুষ্টি হয়ে “০খান সাহেব” উপাধি দেন।

এছাড়া খান সাহেব শেখ মোশারফ হোসেন সাহেব ১৯৬৫, ১৯৭০ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে তিনি ভারতে চলে যান এবং পাকিস্তানি পাক সেনারা তাহার বাড়িঘর পুড়িয়ে দেন।

মরহুম খান সাহেব মোশাররফ হোসেনের ৩১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তার পরিবারের পক্ষ থেকে টুঙ্গিপাড়ায় ও গোপালগঞ্জে বিভিন্ন মসজিদ-মাদ্রাসায় ও গোপালগঞ্জ শহরতলীর ব্যাংকপাড়ার নিজ বাড়িতে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন এই মহান ব্যক্তিকে জান্নাতুল ফেরদাউস দান করুন, আমিন।

ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category