রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
প্রস্তাবিত বাজেটে জনগণের জীবনযাত্রার উন্নয়নে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে মৌলভীবাজারে বন্যায় ৪৫০টি গ্রাম প্লাবিত: খোলা হয়েছে ৯৮টি আশ্রয় কেন্দ্র সুনামগঞ্জ জেলার বন্যা উপদ্রুত এলাকা পরিদর্শনে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী রংপুরের বাজারে উঠতে শুরু করেছে সুস্বাদু হাঁড়িভাঙা আম মাদারীপুরে ডিবি পুলিশের জালে ৫৫০ পিচ ইয়াবা সহ আটক ৩ জন ফরিদপুরে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেটকে আটক ঈদে ঘরমুখো মানুষের হয়রানী ও টিকেট কালোবাজারী বন্ধে পুলিশ ও র‌্যাবের সাব-কন্ট্রোল রুম চালু চাঁপাইনবাবগঞ্জে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও দোয়া মাহফিল নড়াইলে মোটরসাইকেল-ট্রাক মুখোমুখি সংঘর্ষে স্কুলছাত্র নিহত আরোহী গুরুতর আহত ফরিদপুরে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

লালপুরের পাইকপাড়া ব্রীজটি যেন এক মরণ ফাঁদ

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২ নভেম্বর, ২০২০
  • ১২৭ Time View

নাটোর জেলা প্রতিনিধিঃ নাটোরের লালপুর উপজেলার পাইকপাড়া- রঘুনাথপুর সড়কের পাইকপাড়া সেন্টার এলাকায় একটি ব্রিজ খুবই ঝুঁকিপূর্ন। যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা। সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন হাজারো মানুষ যাতায়াত করলেও এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নজর নেই বলে জানান স্থানীয়রা। স্থানীয়রা আরও জানান, পাইকপাড়া, রঘুনাথপুর সহ আশেপাশের কয়েকটি এলাকার জনগনের উপজেলা সদর, হাসপাতাল, বাজার, প্বার্শবর্তী উপজেলা বাঘা যাওয়ার অন্যতম প্রধান রাস্তা এটি। যা কয়েক মাস যাবৎ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। ফলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে এপথে চলাচলকারী সাধারণ মানুষ। সরেজমিনে দেখা যায়, ব্রিজটির বড় একটি অংশে ইট বালির কংক্রিটের ভেঙে রড বাহির হয়ে গেছেফ । যেকোনো সময় যেকোনো ধরনের গাড়ি অলক্ষ্যে এসে পড়লে ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা। আর সন্ধ্যার পরে যেন ব্রীজটি একটি মরণ ফাঁদ। এসময় এপথে চলাচলকারী অলি আহমদ জানান, আমাদের ব্রিজটি দীর্ঘদিন যাবৎ এই বেহাল দশায় পড়ে আছে। ব্রীজটি দিয়ে যারা নিয়মিত চলাচল করে তারা ব্রীজটি সাবধানে পার হয়। আর সন্ধ্যার অন্ধকারে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলতে হয় এই রাস্তায়। এছাড়া যারা হঠাৎ করে অনেকদিন পরে রাস্তায় চলাচল করবে তারা দূর্ঘটনায় পড়া সময়ের ব্যাপার মাত্র বলে জানান তারা। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যুতি জানান, শিগগিরই ব্রিজটি সংস্কারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্রকৌশলীর সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে। এছাড়া দুড়দুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান বলেন, বিষয়টি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউএনও জানানো হয়েছে। তারা ব্যবস্থা নিবে বলে জানিয়েছেন, বিষয়টি এখনো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আপতত টিন সিড দিয়ে সাময়িক মেরামত করা হবে ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজটি। পরবর্তীতে বরাদ্দ পেলে ব্রীজটি স্থায়ী ভাবে সংস্কার করা হবে বলে জানান তিনি।

ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category