শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৪:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
তিস্তা নিজস্ব অর্থায়নে মহাপ্রকল্প বাস্তবায়নের দাবি অনির্দিষ্টকালের জন্য কুবি অর্থনীতি শিক্ষার্থীদের ক্লাস -পরীক্ষা বর্জন বোন বাড়ী থেকে আর বাড়ি ফেরা হলোনা বরগুনার বৃদ্ধ সুলতান খানের বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে গোপালগঞ্জের নবনিযুক্ত জেলা ও দায়রা জজ ড. মোঃ আতোয়ার রহমানের শ্রদ্ধা যশোরের শার্শা সীমান্তে ভারতীয় বিএসএফ’র গুলিতে শামিম নামে এক চোরাচালানী আহত ভালো নেই কালকিনির মৃৎশিল্পীরা লোহাগড়া পৌর সভার সড়কের বেহাল দশা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী’র শ্রদ্ধা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে স্থানীয় সরকার বিভাগের নতুন সচিব আবু হেনা মোরশেদ জামান -এর শ্রদ্ধা নিবেদন রাজশাহী বাগমারার তাহেরপুরে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ফাঁকা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয়ার অভিযোগ

রংপুরে এক প্রেমিকের হাতে অপর প্রেমিক খুন গ্রেপ্তার ২

রিয়াজুল হক সাগর, রংপুর
  • Update Time : শনিবার, ২৯ জুন, ২০২৪
  • ৪৩ Time View

রংপুরে পরকীয়া প্রেমের জেরে সাদ্দাম হত্যকান্ডের ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরা হলো, নগরীর হাজীরহাট রনচন্ডী এলাকার তমিজ উদ্দিনের স্ত্রী শাহের বানু ওরফে শাহনাজ (৩০) ও একই এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে মঞ্জুরুল ইসলাম (৩৬)। শুক্রবার (২৮ জুন) তাদের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিকেলে নগরীর সেন্ট্রাল রোডস্থ মেট্রোপলিটন পুলিশ কার্যালয়ে উপ-পুলিশ কমিশনার আবু মারুফ হোসেন জানান, স্বামী বয়স্ক হওয়ায় শারীরিক চাহিদা পূরণ না পারায় প্রতিবেশী নাতি মঞ্জুরুল ইসলামের সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে শাহনাজ। বছরখানেক আগে প্রতিবেশী সাদ্দাম হোসেনের সাথেও শাহনাজ পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন।

তিনি সাদ্দামকে এড়িয়ে চলার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এরই এক পর্যায়ে শাহনাজ বিষয়টি মঞ্জুরুলকে জানায় এবং যে কোন মূল্যে তাকে পথ থেকে সরিয়ে দিতে বলে। ২৬ জুন রাতে রাত ২টার দিকে ঘর থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় শাহনাজের বাড়ির উঠানে সাদ্দামকে দেখতে পায় মঞ্জুরুল।

বাড়ির লোকদের কাছে ধরা পড়ার ভয়ে তারা সেখান থেকে বেরিয়ে মাঠের দিকে যেতে থাকে। সাদ্দাম পেছন থেকে হাসুয়া নিয়ে মঞ্জুরুলকে সামনে রেখে এগিয়ে যেতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে সাদ্দাম কাদায় পা পিছলে পড়ে যায়।

সুযোগ বুঝে সাথে থাকা দা দিয়ে সাদ্দামকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে মঞ্জুরুল এবং হত্যাকান্ডের পর তা শাহনাজকে জানায়। উপ-পুলিশ কমিশনার আবু মারুফ হোসেন বলেন, শাহনাজের স্বামীর বয়স প্রায় ৭৫ বছর এবং তার স্বামী ছেলেকে নিয়ে আলাদা ঘরে থাকতো।

একাই একটি ঘরে থাকায় সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েছিল শাহনাজ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামীদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। আশা করছি তারা সেখানেও স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেবে।

ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category